বিদেশে উচ্চশিক্ষা

জিম্যাট (GMAT) কি ,কেন এবং কাদের জন্য?

বিদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার স্বপ্ন কে না দেখে! কিন্তু এই স্বপ্ন পূরণের জন্য প্রথমেই প্রয়োজন আমাদের ইংরেজী ভাষায় দক্ষতা অর্জন করা এবং তা পরীক্ষা দিয়ে প্রমাণ করা। ইংরেজী ভাষার দক্ষতা যাচাইয়ের কয়েকটি পরীক্ষা বেশ প্রচলিত। কিন্তু এই পরীক্ষা গুলো যেমন দেশ ও ইউনিভার্সিটি ভেদে ভিন্ন হয়। তেমনি কিছু ক্ষেত্রে বিষয় ভেদেও ভিন্ন হয়। যেমনঃ আপনি যদি এমবিএ করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে যেতে চান তবে ভাল স্কলারশিপ পাওয়ার সবচেয়ে বড় শর্ত জিম্যাট (GMAT)। চলুন তাহলে আজ আমরা জেনে নেই জিম্যাট সম্পর্কে বিস্তারিত।

জিম্যাট (GMAT) কি এবং কাদের জন্য?

জিম্যাট (GMAT= Graduate Management Admission Test) হলো একটি মানদন্ড নির্ধারণকারী কম্পিউটারাইজড পরীক্ষা। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে সাধারণ ব্যাবসায়িক প্রশাসন সম্পর্কিত ডিগ্রী (MBA) করতে চাইলে জিম্যাট দরকার হয়। যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়ার মত অন্যান্য কিছু দেশেও এটি লাগতে পারে। এই পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া, পরীক্ষা নেওয়া, মানদন্ড নির্ধারণ করা থেকে শুরু করে এ জাতীয় সব কাজই করে থাকে GMAC (Graduate Management Admission Council)।

জিম্যাটের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট (https://www.gmac.com/gmat-other-assessments)

জিম্যাট (GMAT) পরীক্ষা কাঠামো ও পদ্ধতি?

৮০০ মার্ক্সের এই পরীক্ষার সময় ৩ ঘন্টা ৩০মিনিট।  কোয়ানটিটেটিভ ও ভারবাল সেকশনের নম্বর এক সাথে বিবেচনা করা হয়। এনালিটিকাল রাইটিং এসেসমেন্টের ও ইন্টিগ্রেটেড রিজনিং বিভাগের নম্বর মোট নম্বরেরে সাথে বিবেচনা করা হয় না। এই দুই বিভাগ ভিন্ন ভাবে বিবেচনা করবে। মোট নম্বর ১০ করে বৃদ্ধি হয়। যেমন- ৫৫০,৫৬০,৫৭০।

জিম্যাটে ৪টি সেকশান থাকে। চারটি আলাদা সেকশন মিলিয়ে মোট ৯১ টি প্রশ্নের উত্তর করতে হয়।

১) এনালিটিক্যাল রাইটিং এসেসমেন্ট- ১টি

২) ভারবাল-৪১টি

৩) কোয়ানটিটেটিভ-৩৭টি

৪) ইন্টিগ্রেটেড রিজনিং- ১২টি

এনালিটিক্যাল রাইটিং

এই সেকশনে প্রার্থীর যুক্তি বিশ্লেষণ করার ক্ষমতা যাচাই করা হবে। এখানে GRE এর মতো দুইটা রচনা (Issue task, argument task) লিখতে হবে এবং প্রতিটির জন্য ৩০ মিনিট সময় থাকবে। স্কোর হচ্ছে ১-৬। সাধারনত ৪ পেলেই হয়ে যায়। ৪ পাওয়া খুব সহজ।

ভার্বাল

৭৫ মিনিট সময় ও ৪১টি প্রশ্ন। এই সেকশনে ৩ ধরনের প্রশ্ন আসে।

Reading Comprehension- একটি passage থাকবে মোটামুটি ৩৫০ শব্দের। পেসেজ দেখে বুঝে নিতে হবে লেখক কি বোঝাতে চেয়েছেন, যে বিষয়ে লিখেছেন সেই বিষয় লেখক কতটুকু পোষণ করেন ইত্যাদি।

Sentence Correction – একটা লাইনের কিছু অংশ আন্ডারলাইন করা থাকবে এবং আন্ডারলাইন করা জায়গাটা পাঁচ রকম করে বলা থাকবে। সঠিক কোনটি সেটা বাছাই করতে হবে।

Critical Reasoning – একটা ছোট প্যারাগ্রাফ থাকবে। ঐ প্যারাগ্রাফের ব্যাপারে একটা প্রশ্ন বা স্ট্যাটমেন্ট থাকবে, তার নিচে পাঁচটি অপশন থাকবে। ঐ পাঁচটি অপশনের মধ্যে কোনটি প্যারাগ্রাফের বিশেষ কোন দিককে দুর্বল/সবল করে দেয়, সেটা বের করতে হবে।

কোয়ানটিটেটিভ

এটি ম্যাথ সেকশন। ৭৫ মিনিটের এই সেকশনে দুই টাইপের প্রশ্ন মিলিয়ে মোট ৩৭ টি প্রশ্ন থাকবে। ক্যালকুলেটর ব্যবহার করা যাবে না।

Problem Solving – ৫টি অপশনের মধ্যে থেকে ১টি সঠিক উত্তর বেছে নিতে হবে।

Data Sufficiency- ১টি প্রশ্ন আর 2টি statement (1 & 2) দেয়া থাকবে। ঐ প্রশ্নটার উত্তর দেয়ার জন্য ইনফর্মেশন গুলো কতটুকু প্রয়োজন হয়, সেটার ওপর ভিত্তি করে A, B, C, D, E সিলেক্ট করতে হবে।

ইন্টিগ্রেটেড রিজনিং

৩০মিনিটের এই সেকশনে ম্যাথ এবং ভার্বাল দুটোরই প্রয়োজন পড়ে। ডাটা, চার্ট, গ্রাফ- একসাথে বিশ্লেষণ করতে হয়।

Table Analysis: টেবিলে তথ্য সাজানো থাকবে এবং সেই তথ্যের আলোকে কয়েকটি অপশন এর মধ্যে সঠিক উত্তর বেছে নিতে হবে।

Graphics Interpretation: গ্রাফ দেওয়া থাকবে আর থাকতে কিছু তথ্য। ঐ তথ্যের আলোকে কয়েকটি ফাঁকা ঘরে উত্তর বসাতে হবে।

Multi-Source Reasoning: ৩টি প্যাসেজ থাকবে এবং ৩টি প্যাসেজে তিন রকম ঘটনা বলা হবে। প্যাসেজের আলোকে সত্য মিথ্যা যাচাই করতে হবে।

Two-Part Analysis: একই প্রশ্নে একই সাথে দুইটি অংশ। সেটাকে বিশ্লেষণ করে উত্তর করতে হবে।

যেহেতু এটি কম্পিউটারাইজড পরিক্ষা তাই প্রত্যেক প্রশ্নের সাপেক্ষে উত্তরের ওপর নির্ভর করে পরবর্তী প্রশ্ন সামনে আসবে। কাজেই পেছনের প্রশ্নগুলোতে ফেরত যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। কোন প্রশ্ন বাদ রাখা যাবেনা। প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। ভুল করলে যতটুকু নাম্বার কাটা যাবে, খালি রেখে আসলে আরো অনেক বেশি কাটা যাবে।

জিম্যাট (GMAT) পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন করবো কিভাবে?

রেজিস্ট্রেশনের জন্য জিম্যাটের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট (https://www.gmac.com/gmat-other-assessments) থেকে ফর্ম ডাউনলোড করতে হবে। এছাড়া আমেরিকান সেন্টার থেকেও সংগ্রহ করতে পারবে।

আমেরিকান সেন্টার

আমেরিকান দূতাবাস

হাউজ#১১, রোড#২৭ বনানী, ঢাকা-১২১৩

ফোন- (৮৮০)(২) ৮৮৩৭১৫০-৪

ই-মেইল- dhakapa@state.gov

ফর্ম পূরণ করার পর ফর্মটি ২৫০ ডলারের ব্যাংক ড্রাফটের সাথে নিচের ঠিকানায় পাঠাতে হবে-

Pearson-VUE

Attention, GMAT Programme

P.O Box-581907

Minneapolis, MN, 554581907, USA

এছাড়াও, জিম্যাট ঢাকা সেন্টারের থেকে চেক সংগ্রহ করে কুরিয়ারের মাধ্যমে পাঠানো যায়। ঢাকা সেন্টারের ঠিকানা-

হাউজ#৮৩/বি রোড#৪

কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ, বনানি, ঢাকা-১২১৩

জিম্যাট পরীক্ষার জন্য যা খরচ লাগে- টেস্ট ফী ২৫০ ডলার, রি-শিডিউলিং ফী ৫০ ডলার, ক্যান্সেলেশন ফী ৮০ ডলার, স্কোর রিপোর্ট ফী ২৮ ডলার। এখানে একটি বিষয় হলো, রি-শিডিউলিং এর জন্য ৭দিন আগে জানাতে হয়। ক্যান্সেলেশন রিফান্ড পেতে চাইলে পরীক্ষার ৭দিন আগে ক্যান্সেল করতে হবে। ফোন কল করে ক্যান্সেল করলে অতিরিক্ত চার্জ হিসেবে ১০ডলার নিবে। ক্রেডিট কার্ড (visa, Mastar card, American Express, JCB), ডেভিড কার্ডের (visa, Master card) মাধ্যমে পেমেন্ট করতে হবে।

বাংলাদেশে জিম্যাটের (GMAT) পরীক্ষা কেন্দ্র কোথায় অবস্থিত?

আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ

হাউজ#৮৩/বি রোড#৪

কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ, বনানি, ঢাকা-১২১৩

সপ্তাহের ৫দিন (সোমবার-শুক্রবার) পরীক্ষা নেওয়া হয় এবং প্রতিদিন ২টি সেকশনে। উল্লেখ্য, ৩১ দিনের মধ্যে একবারের বেশি পরীক্ষা দেওয়া যায় না এবং বছরে সর্বোচ্চ ৫বার পরীক্ষা দিতে পারবে।

জিম্যাট (GMAT) পরীক্ষার প্রস্তুতি কি ভাবে নিবোঃ

এই পরীক্ষার জন্য ম্যাথ এবং ইংরেজী উভয় বিষয়ে দক্ষ হতে হবে। এর জন্য দরকার প্রতিদিন অনুশীলন। প্রস্তুতির শুরুতে দেখতে হবে ইংলিশ স্কিল কেমন। যদি ভালো না থাকে তাহলে ৪/৫ মাসে ইংলিশ স্কিল ভালো করতে হবে। প্রতিদিন ইংলিশ ফিকশান, নিউজপেপার, ম্যাগাজিন, জার্নাল এসব পড়তে হবে। ইংলিশ স্কিল ভালো হয়ে গেলে তারপর জিম্যাটের প্রস্তুতি নেওয়া শুরু করতে হবে। কোচিং ছাড়া বাসায়ও এই প্রস্তুতি নেওয়া সম্ভব।

জিম্যাটের সহকারি কিছু বই ও সিডি-

  • প্রিন্সটন রিভিউ ক্র্যাকিং দা জিম্যাট
  • কাপলান জিআরই/জিম্যাট ম্যাথ ওয়ার্কবুক
  • অফিসিয়াল গাইড ফর দা জিম্যাট
  • সাইফুর’স জিম্যাট প্রস্তুতি সিরিজ
  • সিডি: ১. ডগলাস ফ্রেঞ্জ জিম্যাট টেস্ট। ইত্যাদি।

 

স্বীকারোক্তিঃ এখানে উপস্থাপিত সকল তথ্যই দক্ষ ও অভিজ্ঞ লোক দ্বারা ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করা। যেহেতু কোন মানুষই ভুলের ঊর্দ্ধে নয় সেহেতু আমাদেরও কিছু অনিচ্ছাকৃত ভুল থাকতে পারে।সে সকল ভুলের জন্য আমরা আন্তরিকভাবে ক্ষমাপ্রার্থী এবং একথাও উল্লেখ থাকে যে এখান থেকে প্রাপ্ত কোন ভুল তথ্যের জন আমরা কোনভাবেই দায়ী নই এবং আপনার নিকট দৃশ্যমান ভুলটি আমাদেরকে নিম্নোক্ত মেইল / পেজ -এর মাধ্যমে অবহিত করার অনুরোধ জানাচ্ছি।

ই-মেইলঃ admin@admissionwar.com অথবা এইখানে ক্লিক করুন।

admissionwar-fb-pageaw-fb-group

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button