পরিমাণগত রসায়নের খুটিনাটি (এইচএসসি-২০১৮)

পরিমাণগত রসায়ন অত্যাধিক গুরুত্বপুর্ণ একটা অধ্যায়।এখান থেকে বোর্ড পরীক্ষা এবং ভর্তি পরীক্ষায় অনেক প্রশ্ন হয়ে থাকে।এ অধ্যায় সম্পর্কে খুটিনাটি অলোচনা করার চেষ্টা করেছি।অাশা করি কাজে লাগবে।

★পরিমাণগত রসায়নঃ

গুরুত্বপূর্ণ টপিকসমুহঃ

• মোল সংখ্যা নির্ণয়।

• মোলার ঘনমাত্রা নির্ণয়।

• তুল্যসংখ্যা ও তুল্যভর নির্ণয়।

• নরমালিটি এককে ঘনমাত্রা এবং নরমালিটি ও মোলারিটির সম্পর্ক।

• প্রশমন বিক্রিয়া সম্পর্কিত গাণিতিক সমস্যা।

• রক্তে গ্লুকোজের পরিমান নির্ণয়।

• দ্রবন লঘুকরণ।

• জারন সংখ্যা নির্ণয়।

• জারন-বিজারন বিক্রিয়া, জারক-বিজারক এবং সম্পর্কিত অংক।

• বিয়ার-ল্যাম্বার্ট সুত্র।

প্রয়োজনীয় সূত্রাবলীঃ

• মোল সংখ্যা,

n=w/M = V(stp)/ 22.4 = N/(6.023×10²³)= S×V = PV/RT

• মোলার ঘনমাত্রা, S= W/MV(L)

• নরমালিটি = মোলারিটি×তুল্যসংখ্যা

• দ্রবণ লঘুকরন, V1 S1= V2 S2

• প্রশমণ বিক্রিয়া সম্পর্কিত,

e1 v1 s1 = e2 v2 s2

e1 (m1/M1) = e2(m2/M2)

e1v(l)S = e2 (m/M)

• শতকরা পরিমাণ, %= SM/10

• PPM এককে ঘনমাত্রা, PPM= m(mg)/V(L) = %×10⁴

• রক্তে গ্লুকোজ এর পরিমাণ,

mmol/L—–> mg/dL—–> 18 দিয়ে গুন

mg/dL ——-> mmol/L ——-> 18 দিয়ে ভাগ

কিছু যৌগের তুল্যসংখ্যাঃ

• KMnO4 = 5

• K2Cr2O7 = 6

• FeSO4 = 1

• Na2S2O3 = 1

• CuSO= 1

• I2 = 2

• H2O2 = 2

• KClO3 = 6

• FeCl3 = 1

রসায়নের যত শর্টকাট টেকনিক ! (HSC Suggestion)

গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্যঃ

• STP তে প্রমাণ আয়তন, 22.4L।

• কক্ষ তাপমাত্রা বা SATP তে প্রমাণ আয়তন, 24.8L।

• মোলার দ্রবণের ক্ষেত্রে, আয়তন 1L, মোল সংখ্যা, 1mol, দ্রবের ঘনমাত্রা, 1M।

• সেমি মোলার দ্রবণের ক্ষেত্রে, আয়তন 1L; মোল সংখ্যা, 0.5mol; দ্রবের ঘনমাত্রা, 0.5M।

• ডেসি মোলার দ্রবণের ক্ষেত্রে, আয়তন 1L; মোল সংখ্যা, 0.1mol; দ্রবের ঘনমাত্রা, 0.1M।

• সেন্টি মোলার দ্রবণের ক্ষেত্রে, আয়তন 1L; মোল সংখ্যা, 0.01mol; দ্রবের ঘনমাত্রা, 0.01M।

• PPM এর একক mg/L বা mg/kg।

• তুল্যসংখ্যা এবং অম্লত্ব/ক্ষারকত্ব একই সংখ্যা

• আনবিক ভর, FeSO4 = 152; KMnO4=158; K2Cr2O7=294।

• প্রাইমারী ষ্ট্যাণ্ডার্ড যৌগগুলোর মাঝখানে C থাকে। যেমন Na2CO3, H2C2O4, NA2C2O4, K2Cr2O7। ব্যাতিক্রম HCl

• CO2 এর তুল্যসংখ্যা 2

মেডিকেল vs ইঞ্জিনিয়ারিং কোনটার কোচিং করবে??সমাধান…

তুল্যসংখ্যা নির্ণয়

• ধাতুর তুল্যসংখ্যা = ধাতুর যোজনী

• এসিডের তুল্যসংখ্যা = এসিডের উপস্থিত হাইড্রোজেন সংখ্যা।

• ক্ষারকের তুল্যসংখ্যা = ক্ষারকের যতটি OH আয়ন ত্যাগ করে বা যতগুলি [H+] গ্রহন করে।

• লবণের তুল্যসংখ্যা = লবণে উপস্থিত ধাতুর মোট যোজনী বা ক্যাটায়নের চার্জ।

• জারক-বিজারকের তুল্যসংখ্যা,

জারকের তুল্যসংখ্যা= জারক যতগুলি e গ্রহন করে।

বিজারকের তুল্যসংখ্যা = বিজারক যতগুলি e দান করে।

জারণ সংখ্যা নির্ণয়

• গ্রুপ 1 এর মৌল গুলোর জারন সংখ্যা= +1

• গ্রুপ 2 এর মৌল গুলোর জারন সংখ্যা= +2

• হ্যালোজেন গ্রুপের মৌল গুলোর জারন সংখ্যা= -1

• নিরপেক্ষ অবস্থায় জারন সংখ্যা= 0

• H2 যখন কোন ধাতুর সাথে যুক্ত থাকে তখন তার জারন সংখ্যা -1

• পার অক্সাইডে O2 এর জারন সংখ্যা -1

• সুপার অক্সাইডে O2 এর জারন সংখ্যা -1/2

এইচএসসির শর্টবাট সাজেশন

এছাড়াও এ অধ্যায় এ প্রচুর অংক রয়েছে যেসব অনেক গুরত্বপুর্ণ। উপরের সুত্রগুলোকে কাজে লাগিয়ে অংক গুলো করার চেষ্টা কর। আশা করি ভাল কিছু হবে। এই কামনা এবং সবাইকে শুভচ্ছা।

লিখেছেন

Sajjad Alam Saj -IU(Mathematics)

এই সম্পর্কিত আরো

Back to top button
Close