বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি বিজ্ঞপ্তি

২০টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ পদ্ধতিতে GST ভর্তি পরীক্ষা ২০২০-২১

২০ টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ পদ্ধতিতে GST ভর্তি পরীক্ষা ২০২০-২১। ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের পাবলিক সাধারন ও বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে GST ভর্তি বিজ্ঞপ্তি gstadmission.ac.bd ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়।   গুচ্ছ পদ্ধতি ভর্তি পরীক্ষা কিভাবে নেওয়া হবে, কিভাবে পরীক্ষার্থী বাছাই করা হবে, কোথায় ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হবে, মান বন্টন কেমন হবে এবং এ সম্পর্কিত আরোও বিভিন্ন প্রয়োজনীয় তথ্য জেনে নেওয়া যাক।

⚠ প্রাথমিক আবেদনের সময় সরকার ঘোষিত চলমান লকডাউন শেষ হওয়ার পরবর্তী ১০ দিন পর্যন্ত চলবে।।

 গুচ্ছ পদ্ধতিতে GST ভর্তি পরীক্ষা ২০২০-২১

গত ১৯ ডিসেম্বর, ২০২০ তারিখ ১৯ টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের বৈঠকে এই ভর্তি পরীক্ষা পদ্ধতির (গুচ্ছ পদ্ধতি) সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা কার্যক্রমের যুগ্ম আহ্বায়ক ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মিজানুর রহমান এ তথ্য জানিয়েছেন।

দেশের ১৯ টি পাবলিক সাধারন ও বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা গুচ্ছ পদ্ধতিতে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের জন্য GST ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। পরবর্তীতে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এই গুচ্ছ পরীক্ষা পদ্ধতিতে আসার আসার সিদ্ধান্ত নেয়। এর ফলে গুচ্ছ পদ্ধতিতে এখন পর্যন্ত মোট ২০টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় যুক্ত হলো।

গুরুত্বপূর্ণ তারিখ ও সময়

প্রাথমিক আবেদন

আবেদন শুরু :  ০১ এপ্রিল ২০২১

শেষ তারিখ : লকডাউনের শেষ হওয়ার পরবর্তী ১০ দিন পর্যন্ত।

আবেদন ফি : ৫০০ টাকা

ফলাফল : —

চূড়ান্ত আবেদন

আবেদন শুরু :  —-

শেষ তারিখ : ২০ মে ২০২১

প্রবেশ পত্র ডাউনলোড : ০১ থেকে ১০ মে ২০২১

আবেদন ফি : ৫০০ টাকা

 আবেদন লিংক : gstadmission.ac.bd

জিএসটি ভর্তি পরিক্ষার তারিখ

সমন্বিত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর GST ভর্তি পরীক্ষার তারিখ প্রকাশ করা হয়েছে। প্রতিটি ইউনিটের পরীক্ষা দুপুর ১২.০০ টায় শুরু হবে এবং ১.০০ টায় শেষ হবে ।

A ইউনিট – (বিজ্ঞান) ১৯ জুন ২০২১
B ইউনিট – (মানবিক) ২৬ জুন ২০২১
C ইউনিট -(বানিজ্য) ০৩ জুলাই ২০২১

 

আরও পড়ুন: কোন বিশ্ববিদ্যালয় কিভাবে ভর্তি পরীক্ষা নিবে

 ভর্তি পরীক্ষার যোগ্যতা

২০১৭ ও ২০১৮ সালের এসএসসি/সমমান এবং ২০১৯ ও ২০২০ সালের এইচএসসি/সমমান উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা ভর্তি পরীক্ষার জন্য প্রাথমিক অনলাইন আবেদন করতে পারবেন। বিভিন্ন বিভাগের জন্য আলাদা আলাদা যোগ্যতা নির্ধারণ করা হয়েছে ।

  • A ইউনিট – বিজ্ঞান

এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আবেদনকারীদের এসএসসি/সমমান ও এইচএসসি/সমমান উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ সহ সর্বমােট জিপিএ ৮.০০ থাকতে হবে।

সাধারন শিক্ষাবাের্ডের বিজ্ঞান শাখাসহ ভােকেশনাল (এইচএসসি) এবং মাদ্রাসা বাের্ড (বিজ্ঞান) বিজ্ঞান শাখা হিসাবে বিবেচিত
হবে।

  • B ইউনিট – মানবিক

এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আবেদনকারীদের এসএসসি/সমমান ও এইচএসসি/সমমান উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ সহ সর্বমােট জিপিএ ৭.০০ থাকতে হবে।

সাধারন শিক্ষাবাের্ডের মানবিক শাখাসহ মিউজিক, গার্হস্থ্য অর্থনীতি এবং মাদ্রাসা বাের্ড (সাধারন, মুজাব্বিদ) মানবিক শাখা হিসাবে বিবেচিত হবে।

  • C ইউনিট – ব্যবসায় শিক্ষা

এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আবেদনকারীদের এসএসসি/সমমান ও এইচএসসি/সমমান উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ সহ সর্বমােট জিপিএ ৭.৫০ থাকতে হবে।

সাধারন শিক্ষাবাের্ডের বাণিজ্য শাখাসহ ডিপ্লোমা ইন বিজনেস স্টাডিস, ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা (এইচএসসি) এবং ডিপ্লোমা ইন কমার্স বাণিজ্য শাখা হিসাবে বিবেচিত হবে।

জিসিই O এবং A লেভেল এর যোগ্যতা ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে দেখুন ।

আরও পড়ুন: বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি সহায়ক পিডিএফ বই

 পরীক্ষার্থী বাছাই পদ্ধতি

এসএসসি/সমমান ও এইচএসসি/সমমান পরীক্ষার ফলাফলের উপর ভিত্তি করে প্রাথমিকভাবে আবেদনকৃত শিক্ষার্থীদের মেধা তালিকা প্রণয়ন করা হবে । চুড়ান্ত আবেদনের মেধাতালিকা তৈরির প্রক্রিয়াটি নিচে দেওয়া হল :

  • বিজ্ঞান বিভাগ

বাছাইয়ের শর্ত

জিপিএ (৪র্থ বিষয়সহ)

(এইচএসসি ৬০%+এসএসসি ৪০%)

নম্বর (৪র্থ বিষয়সহ)

(এইচএসসি ৬০%+এসএসসি ৪০%)

এইচএসসি পদার্থ বিজ্ঞান

এইচএসসি রসায়ন

জিপি

নম্বর

জিপি

নম্বর

বাছাইক্রম

  • বাণিজ্য শাখা
বাছাইয়ের শর্ত জিপিএ (৪র্থ বিষয়সহ)

(এইচএসসি ৬০% +এসএসসি ৪০%)

নম্বর (৪র্থ বিষয়সহ)

(এইচএসসি ৬০% +এসএসসি ৪০%)

এইচএসসি বাংলা এইচএসসি ইংরেজী
জিপি নম্বর জিপি নম্বর
বাছাইক্রম
  • মানবিক শাখা
বাছাইয়ের শর্ত

জিপিএ (৪র্থ বিষয়সহ)

(এইচএসসি ৬০% +এসএসসি ৪০%)

নম্বর (৪র্থ বিষয়সহ)

(এইচএসসি ৬০% +এসএসসি ৪০%)

এইচএসসি বাংলা এইচএসসি ইংরেজী
জিপি নম্বর জিপি নম্বর
বাছাইক্রম

উপরে উল্লেখিত সর্বোচ্চ ৬টি মানদন্ড ব্যবহার করে প্রাথমিক আবেদনকারীদের মেধাতালিকা প্রস্তুত করা হবে। নির্ধারিত সময়ে চুড়ান্ত আবেদন সম্পন্ন করতে হবে। অন্যথায় পরবর্তী মেধাতালিকা হতে প্রয়ােজনীয় সংখ্যক শিক্ষার্থীকে চুড়ান্ত আবেদনের সুযােগ দেওয়া হবে।

চুড়ান্ত আবেদনের সময় শিক্ষার্থীদের ২৮ টি পরীক্ষাকেন্দ্র হতে নূন্যতম ৫টি কেন্দ্র পছন্দের তালিকায় রাখতে হবে।

ভর্তি পরীক্ষার মান বন্টন

GST ভর্তি পরীক্ষা মোট ১০০ নম্বরে অনুষ্ঠিত হবে । সকল ইউনিটের পরীক্ষার ১.০০ ঘন্টায় হবে । নিচে সকল ইউনিটের মানবন্টন দেওয়া হল –

  • বিজ্ঞান শাখা ( এ ইউনিট)
  বিষয়  নম্বর  মোট নম্বর
 আবশ্যিক বিষয় পদার্থবিজ্ঞান ২০  ৬০
রসায়ন ২০
বাংলা ১০
ইংরেজী ১০
ঐচ্ছিক ( যে কোন দুইটি) গণিত
২০  ৪০
জীববিজ্ঞান ২০
আইসিটি ২০
  • মানবিক শাখা ( বি ইউনিট )
বিষয় মান
বাংলা ৪০
ইংরেজী ৩৫
আইসিটি ২৫
মোট ১০০ নম্বর

আরও পড়ুন: বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির সকল আপডেট

  • বাণিজ্য শাখা ( সি ইউনিট)
বিষয় মান
হিসাববিজ্ঞান ২৫
ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা ২৫
বাংলা ১৩
ইংরেজী ১২
আইসিটি ২৫
মোট ১০০ নম্বর
  • আইসিটি, গণিত ও জীববিজ্ঞান যেকোন দুটি বিষয় পরীক্ষা হবে।

GST ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২১

২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের GST ( General and Science Technology) বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে ।

গুচ্ছ পদ্ধতির ২০ টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে তালিকা

গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরিক্ষা জন্য যে ২০ টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সেগুলোর মধ্যে সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয় ৯টি এবং বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদালয় ১১ টি ।

সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয় ( ৯টি) বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদালয় (১১ টি)
১. জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ১০. শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
২. বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর ১১. পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
৩. শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় (নেত্রকোনা) ১২. বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
৪. জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় ১৩. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়
৫. বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ১৪. রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
৬. রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় ১৫. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গোপালগঞ্জ
৭. কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় ১৬. পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
৮. খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় ১৭. যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
৯. ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ১৮. নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
  ১৯. মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
  ২০. হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি সংক্রান্ত আরো আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ ও গ্রুপে যোগ দিন ।

স্বীকারোক্তিঃ এখানে উপস্থাপিত সকল তথ্যই দক্ষ ও অভিজ্ঞ লোক দ্বারা ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করা। যেহেতু কোন মানুষই ভুলের ঊর্দ্ধে নয় সেহেতু আমাদেরও কিছু অনিচ্ছাকৃত ভুল থাকতে পারে।সে সকল ভুলের জন্য আমরা আন্তরিকভাবে ক্ষমাপ্রার্থী এবং একথাও উল্লেখ থাকে যে এখান থেকে প্রাপ্ত কোন ভুল তথ্যের জন আমরা কোনভাবেই দায়ী নই এবং আপনার নিকট দৃশ্যমান ভুলটি আমাদেরকে নিম্নোক্ত মেইল / পেজ -এর মাধ্যমে অবহিত করার অনুরোধ জানাচ্ছি।

ই-মেইলঃ admin@admissionwar.com অথবা এইখানে ক্লিক করুন।

admissionwar-fb-pageaw-fb-group

৩৮ Comments

  1. প্রাথমিক আবেদনে কি টাকা লাগে?
    আমি ত দিই নি। প্রাথমিক আবেদনের পর তারপর কি টাকা দিতে হবে?

  2. প্রশ্ন যাদের ৩.০০+৪.০০=৭.০০ তারা পরীক্ষা দিতে পারবে না।যাদের ৩.০০+৩.০০=৬.০০ এরা পরীক্ষা দিতে পারবে না।গুচ্ছ পদ্ধতি তে পরীক্ষা না হইয়ে আলাদা আলাদা পরীক্ষা হতো তাইলে এরা ৬-৭ টা বিশব্বিদ্যালয়ে পরীক্ষা দিতে পারতো।তাইলে এদের কনো সুযোগ দেয়া হলো না কেনো?

  3. এস.এস.সি ৪.৪১।এইচ এস সি ৩.৭৫।মোট নম্বরঃ৮.১৬
    আমি কি ব্যাবসায় বিভাগে প্রাথমিক আবেদনে সিলেক্ট হতে পারবো?

  4. এস.এস.সি ৪.৪১।এইচ এস সি ৩.৭৫।
    আমি কি ব্যাবসায় বিভাগে প্রাথমিক আবেদনে সিলেক্ট হতে পারবো?

  5. ইনশাআল্লাহ আপনি সিলেক্ট হয়ে যাবেন।সুন্দর একটা প্রিপারেশন নিন।
    আর আমার জন্য দো’আ রাখবেন।😓

      1. (আইসিটি, গণিত ও জীববিজ্ঞান যেকোন দুটি বিষয় পরীক্ষা হবে)….কোন দুটি ?????

  6. আমি ২০১৭ তে এসএসসি পরীক্ষা দেই। পয়েন্ট ৫.০০। ২০১৯ এ এইচএসসি। পয়েন্ট ৪.৭৫। দুইটায় মিলে আমার মোট পয়েন্ট হয় ৯.৭৫। আর আমি সেকেণ্ড টাইম ভার্সিটিতে ভর্তি পরীক্ষা দিতে চাচ্ছি। এখন আমি বুঝতে পারতেছিনা প্রাথমিক সিলেকশনে আমি থাকতে পারবো কিনা। অনুগ্রহ করে কি কেউ একটু বলতে পারবেন, আমার এই পয়েন্ট নিয়ে আমি ভর্তি পরীক্ষা দেয়ার জন্য প্রাথমিক সিলেকশনে থাকার সম্ভাবনা কতটুকু আছে…??

  7. ১৫০০০০ জন সিলেকশন কেন??? এখানে যা শর্ত দেয়া আছে সেই হিসেবে তো অনেকেই এক্সাম দিতে পারার কথা। কিন্তু হিসেব করলে যাদের রেসাল্ট ৯.সামথিং এদের অনেকের প্রিপারেশন ভালো তারা কি এক্সাম দিতে পারবে না!!!!!!!! এবার তো A+ এর ছড়াছড়ি তাহলে যাদের A+ নেই তাদের কি হবে প্রশ্ন রইলো কর্তৃপক্ষের কাছে???

    1. প্রাথমিক আবেদন ১ এপ্রিল ২০২১ থেকে ১৫ এপ্রিল ২০২১ পর্যন্ত।
      প্রাথমিক আবেদন এ সিলেক্টেড হলে ২৪ এপ্রিল ২০২১ থেকে ২০ মে ২০২১ এর মধ্যে চুড়ান্ত আবেদন সম্পন্ন করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button